চট্টগ্রামে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ ফাঁসি ৫ জেএমবি সদস্যের

0
11

 

AVvXsEjWFQ3QzIrc0HdFts6uE9yKA7kaF0pnqSsykf X4OTi Y3JfLly7iQboiGuZZakfpJ iJQbfhAyKyVx ZD7LffGmse0UI54h4uHrnBfKsV lt93GVdWPQ5IuVQdQN3zwfqi3LbhFaOU4XwzOUlpDsOlsHuaVXu7XSSm1u2CbjWktXRI7GcG5j5RoYiP=w630 h354

চট্টগ্রামে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ ফাঁসি ৫ জেএমবি সদস্যের 

চট্টগ্রামে নৌবাহিনীর ঈশা খাঁ ঘাঁটির ভেতরে মসজিদে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় জেএমবির ৫ সদস্যর ফাঁসির রায় ঘোষণা করেছেন আদালত। একইসঙ্গে আসামিদের ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ আগস্ট) চট্টগ্রামের সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবদুল হালিম এ রায় ঘোষণা করেন। মামলায় চলতি বছরের ২৩ মার্চ সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয় এবং ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ আদালত এ রায় দিয়েছেন।


দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- নৌবাহিনীর সাবেক সদস্য এম সাখাওয়াত হোসেন, বলকিপার আবদুল মান্নান ও রমজান আলী, বাবুল রহমান ওরফে রনি এবং জেএমবি সদস্য আবদুল গাফফার। তাদের মধ্যে সাখাওয়াত হোসেন পলাতক আছেন।


আসামি পক্ষের আইনজীবী জালাল উদ্দীন বলেন, রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে।


২০১৫ সালের ১৮ ডিসেম্বর জুমার নামাজের পরে ১০ মিনিটের ব্যবধানে চট্টগ্রামে নৌবাহিনীর ঈশা খাঁ ঘাঁটির ভেতরের দুটি মসজিদে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। পরে হামলার নয় মাস পর ২০১৬ সালের ৩ সেপ্টেম্বর নেভাল প্রভোস্ট মার্শাল কমান্ডার এম আবু সাঈদ বাদী হয়ে সন্ত্রাসবিরোধী ও বিস্ফোরক আইনে নগরীর ইপিজেড থানায় মামলা করেন।


২০১৭ সালের ১৫ অক্টোবর ৫ জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র জমা দেয় ইপিজেড থানার পরিদর্শক মুহাম্মদ ওসমান গণি। অভিযোগপত্রে মোট ২৪ জনকে সাক্ষী করা হয়েছিল। ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজকে আদালত এই রায় দিয়েছেন।

আরো পড়ুন:


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here