বিএনপির ১৭০ নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা

0
8

 

%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%8F%E0%A6%A8%E0%A6%AA%E0%A6%BF%E0%A6%B0%20%E0%A7%A7%E0%A7%AD%E0%A7%A6%20%E0%A6%A8%E0%A7%87%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%AE%E0%A7%80%E0%A6%95%E0%A7%87%20%E0%A6%86%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%BF%20%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%87%20%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%B2%E0%A6%BE

খুলনা রেলস্টেশনে ভাঙচুর বিএনপির ১৭০ নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা

খুলনা রেলস্টেশনে ভাঙচুর এবং পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ১০টার দিকে খুলনা রেলওয়ের স্টেশনমাস্টার মানিক চন্দ্র সরকার বাদী হয়ে খুলনা রেলওয়ে থানায় মামলাটি করেন। এতে ১৫০ থেকে ১৭০ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

খুলনা রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা মো. খবির আহমেদ বলেন, মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে যে গতকাল শনিবার দুপুরে বিএনপির সমাবেশে আসা অজ্ঞাতনামা ১৫০ থেকে ১৭০ জন ব্যক্তি খুলনা রেলওয়ে স্টেশনে হামলা করেন। 

ওই সময় স্টেশনের ২৫টি গ্লাস ভাঙচুর করা হয়। রেলস্টেশন ভাঙচুর, স্টেশনের নিরাপত্তাকর্মী ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলাটি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘যেহেতু ভাঙচুর ও হামলা করেছে বিএনপির নেতা-কর্মীরা, তাই মামলায় অজ্ঞাত বলা হলেও সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।’

খুলনা রেলওয়ে স্টেশনমাস্টার মানিক চন্দ্র সরকার বলেন, ‘সমাবেশে আসা নেতা-কর্মীরা রেলস্টেশনে নিজেরাই সংঘর্ষে জড়ান। পরে পুলিশের সঙ্গে তাঁদের সংঘর্ষ হয়।’

গতকাল দুপুর ১২টার দিকে খুলনা রেলস্টেশন এলাকায় পুলিশ ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ওই সংঘর্ষের সময় রেলস্টেশনে ভাঙচুর করা হয়। বিএনপির সমাবেশে আগত ব্যক্তিদের বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে ওই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, গতকাল দুপুর ১২টার দিকে রেলস্টেশন চত্বরে ভিড় করেছিলেন বিভিন্ন এলাকা থেকে সমাবেশে আসা বিএনপির নেতা-কর্মীরা। এ সময় পুলিশ তাঁদের সেখান থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। এটা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের লাঠিপেটা করে। এ সময় বিএনপির নেতা-কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন এবং স্টেশনের বিভিন্ন জানালা-দরজার কাচ ভেঙে ফেলেন। প্রায় আধঘণ্টা পর পরিস্থিতি শান্ত হয়।

Content by prothomalo

আরো পড়ুন:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here