বিমানবন্দরে লাগেজ পেতে ৩ ঘণ্টা, সীমাহীন ভোগান্তি

0
11

 

AVvXsEj15mQa3zeEvN6X6C HD0MnsmMc 31k09Yd9uzMZSX 45IP6xvdSUFjJTRnEwP zLc2msUCcELB w ti3ZiGOHd s5vbwzePp4T CJOh92Mp uZ3YReA dYcKTFc0W23xvA UyaLBOOP6frU7JW73cg VIHpC rswnQu8S6SQ8iWCR6RxRRuOxvA7qI=w639 h359

বিমানবন্দরে লাগেজ পেতে ৩ ঘণ্টা, সীমাহীন ভোগান্তি

বিদেশ থেকে দেশে ফিরেও প্রবাসীদের পড়তে হচ্ছে ভোগান্তিতে। শুধু লাগেজ নিয়ে বের হতেই সময় লাগছে ২ থেকে ৩ ঘণ্টা।

লাগেজ বেল্ট থেকে লাগেজ এলোমেলোভাবে নিচে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বেল্টের কর্মীদেরও ব্যবহার ভালো নয় বলে অভিযোগ অনেকের।  


বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়।

AVvXsEhcD1Y61U2sErzmftWOgddbz05R8hAbwRf5HazJfCGNSqriAK5mTjVMDVQtKEktNnC6zuSzRoGBrIVD s4Ihp95Yac5 xfEMGBzYWlXyEiIouZAre0MsYqOLJlTonwJanKxW 9NShADmgQc CfTwak3l2wPDG15MoMYj5GLOphf1hqsB8ZVNSLiNAAN=w639 h359


এদিন দুপুর দুটার দিকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন মো. হুমায়ুন। বিমানবন্দরের টার্মিনালে-১ এ (ক্যানপি-১) তিনি স্বজনদের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। যাবেন কুমিল্লা। হুমায়ুন বাংলানিউজকে বলেন, চার মাস আগে গিয়েছিলাম সৌদি আরব। অসুস্থতার কারণে দেশে ফিরে এসেছি। প্লেন থেকে নেমেছি দুপুর দুইটায়। কাস্টমস হয়ে বিভিন্ন জায়গা ঘুরে এয়ারপোর্ট থেকে বের হতে আমার সময় লেগেছে দেড় ঘণ্টা। বিমানবন্দরের কর্মকর্তাদের কথা কী বলবো? বাঙালি আসলে খুব খারাপ। এই দেশের কেউ পদ পেলে মানুষকে আর মানুষ মনে করে না।  


এদিকে বাংলাদেশে চলাচলকারী ২৭টি উড়োজাহাজ সংস্থার সংগঠন এয়ারলাইন অপারেটরস কমিটির (এওসি) সূত্র বলছে, শাহজালাল বিমানবন্দরের গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিং ব্যবস্থাপনা ঠিকভাবে সামাল দিতে পারছে না বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। জনবল কম থাকায় বিমান সময়মতো প্রয়োজনীয় সেবা দিতে ব্যর্থ হচ্ছে। অথচ এ ব্যবস্থাপনার জন্য এয়ারলাইনসগুলোকে প্রতি ফ্লাইটে সেবাভেদে ২ হাজার ২০০ থেকে ৫ হাজার ৭০০ মার্কিন ডলার পর্যন্ত বিমানকে দিতে হয়।

AVvXsEiPwtvjWrNCCi8X7p5a0Yr8jgLD8VNiHA6GzK1qfdi6O0W57ofMTE gaONPtuEw aJSlidWTvMRzs1kaSeIuwMmg8t2oQ8Axakat1maI4IUTO67ZR2BOKlJ1au4GNz3C8krhXAYJIbzgZfrVYUuvZYu2YCddY8Alw1jYRVUepOgKP2jEPUR3 I8eUag=w616 h277


এওসির সদস্য ও একটি বিদেশি উড়োজাহাজ সংস্থার এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রথম আলোকে বলেন, ‘গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিংয়ে দেরির কারণে প্রতিদিন আন্তর্জাতিক ফ্লাইটগুলো দেরি হয়। এমনকি বিমানবন্দরের বে–এরিয়াতে উড়োজাহাজ অপেক্ষা করতে হয়। কখনো তা এক থেকে দুই ঘণ্টা ছাড়ায়। অথচ সময়মতো এগুলো করতে বিমান বাংলাদেশকে এয়ারলাইনসগুলো ফি দিয়ে থাকে।’


উদাহরণ দিতে গিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, প্রায়ই সময় ট্যাক্সিতে উড়োজাহাজ দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। সেটি দেড় ঘণ্টাও ছাড়ায়। যেমন ৮ মে রাত ৯টা ৩৮ মিনিটে মধ্যপ্রাচ্য থেকে সৌদি এয়ারলাইনসের বড় পরিসরের (ওয়াইড বডি) একটি ফ্লাইট দেশে আসে। সেটি থেকে ব্যাগেজ নামানোর জন্য দুটি হাইলোডার যন্ত্র দরকার। কিন্তু বিমানের পক্ষ থেকে একটি হাইলোডার দেওয়া হয়। সেটা দেওয়া হয় ৪৪ মিনিট দেরির পর। ওই ফ্লাইটের যাত্রীদের ব্যাগ বুঝে পেতে দুই ঘণ্টা লেগে যায়।

আরো পড়ুন:


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here