ফিলিস্তিনের মুসলিম বন্দিদের দাবি মেনে নিল ইসরাইল

ইসরাইলের কারাগারে ফিলিস্তিনের আটক মুসলিমরা অমানুষিক নির্যাতনের প্রতিবাদে গত ৮ এপ্রিল আমরণ অনশন কর্মসূচি গ্রহণ করে। এ অনশন কর্মসূচিতে তাদের সুনির্দিষ্ট কিছু দাবিও ছিল। দীর্ঘ ৮ দিন অনশনের পর গত ১৫ এপ্রিল রাতে ইসরাইল কারা কর্তৃপক্ষ তাদের কিছু দাবি মেনে নেয়।
ফিলিস্তিনের বন্দিদের সঙ্গে কারা কর্তৃপক্ষের একটি সমঝোতা হয়েছে। অনশনের ফলে তারা বন্দিদের দাবি মেনে নিতে বাধ্য হয়েছে। দাবি মেনে নেয়ার শর্তে আটক ফিলিস্তিনিরা অনশন ভঙ্গ করে।

বন্দিদের দাবি ছিল, কারাগারে বন্দিদের প্রতি নির্যাতন বন্ধ করা। নির্যাতনের আধুনিক অস্ত্র নয়েজ ডিভাইস প্রত্যাহার করা। কারাবন্দিদের সুবিধার্থে কারাগারে টেলিফোন বক্স স্থাপন করা এবং স্বজনদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুব্যবস্থা করা। এ ছাড়াও আরো অনেক দাবি রয়েছে যা তারা মেনে নিয়েছে।
ইসরাইলের বিভিন্ন কারাগারে অবস্থানরত ৪শ’র অধিক বন্দি অনশন করেন। তাদের দাবি বাস্তবায়ন না হলে আরো এক হাজার ফিলিস্তিনি বন্দি অনশনে অংশগ্রহণ করার হুমকিও দিয়েছিল।
উল্লেখ্য যে, ইসরাইলের কারাগারগুলোতে খারাপ অবস্থা বিরাজ করছে। বন্দিদের ভাষায়, কারাগারের অবস্থা দিন দিন খারাপ হয়ে ওঠছে। নানাভাবে তাদের নির্যাতন করা হচ্ছে।
উল্লেখ্য যে, ২০১৫ সাল থেকে ইসরাইলের কারাগারে এ পর্যন্ত অন্তত ৬ হাজার ফিলিস্তিনি শিশু বন্দি রয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ। কারাগারে বন্দি এ সব শিশুদের প্রায় ৯৮ ভাগই প্রতিনিয়ত শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।
ফিলিস্তিনের এসব বন্দিদের বিনা বিচারে বছরে পর বছর কারাগারে আটক করে রেখেছে ইসরাইল কর্তৃপক্ষ। ফিলিস্তিন তাদের সব কারাবন্দিদের মুক্তি দাবি জানিয়ে আসছে।
(jagonews24)

লেবেলসমূহ:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget