Priyank Panchal: প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১০০ ম্যাচ, ৭০০০-র বেশি রান, চিনে নিন প্রোটিয়া সফরে ভারতের নবতম সংযোজন প্রিয়ঙ্ককে


১০০টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে ফেলেছেন। ২৪টি শতরানও এসেছে তাঁর ব্যাট থেকে। গুজরাত দলের অধিনায়কের ব্যাট থেকে এসেছিল তিনশো রানের ইনিংসও। কিন্তু ভারতীয় দলে ডাক পেলেন প্রায় ৩২ বছর বয়সে। প্রিয়ঙ্ক পঞ্চাল নিজেই অবাক হঠাৎ বিরাট সংসারে ঢুকতে পেরে।


রোহিত শর্মার চোট। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে খেলবেন না তিনি। বিরাট কোহলীর নেতৃত্বে সেই সফরে ওপেনার হিসেবে রোহিতের বদলে দলে নেওয়া হল প্রিয়ঙ্ককে। টুইট করে গুজরাতের ওপেনার লেখেন, ‘আমাকে শুভেচ্ছা জানানোর জন্য ধন্যবাদ সবাইকে। ভারতীয় দলের জার্সি পরতে পারব বলে গর্বিত। আমার উপর ভরসা দেখানোর জন্য ধন্যবাদ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে। সিরিজ নিয়ে আশাবাদী।’


ভারত ‘এ’ দলের হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলতে গিয়েছিলেন প্রিয়ঙ্ক। বেসরকারি টেস্টে ৯৪ রানের ইনিংসও খেলেছেন তিনি। তবে ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার কোনও আশা ছিল না। ফিরে এসেছিলেন দেশে। এমন সময় হঠাৎ ভারতীয় দলের দরজা খুলে গেল তাঁর সামনে। প্রিয়ঙ্ক বলেন, “তিন দিন আগে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফিরেছি। এখনও ব্যাগ থেকে সব জিনিস বার করতে পারিনি। তার আগেই মুম্বইয়ে দলের সঙ্গে জৈবদুর্গে ঢুকতে হচ্ছে।” এই ডাকের অপেক্ষাতেই ছিলেন প্রিয়ঙ্ক। তিনি বলেন, “শেষ কয়েক বছর গুজরাত এবং ভারত ‘এ’ দলের হয়ে ভাল ছন্দে রয়েছি। ভারতীয় দলে ডাক পাওয়ার জন্য বেশ কয়েক বছর ধরে অপেক্ষা করছিলাম। তবে এ বার ডাক পাওয়ার আশা করিনি। এটা আমাকে অবাক করে দিয়েছে।”

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৭০১১ রান করেও ভারতীয় দলে জায়গা না পাওয়ায় তিনি যে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন তা জানাতে দ্বিধা করেননি প্রিয়ঙ্ক। তিনি বলেন, “রান করেও দলে জায়গা না পাওয়ায় আমি হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। তবে আমি সব সময় ভাবতে থাকি ব্যাটার হিসেবে কী খামতি রয়েছে? ভারতের হয়ে খেলতে হলে সব কিছু ঢেকে ফেলতে হবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার জন্য কী কী প্রয়োজন? আমার সব পরিশ্রমের ফল এত দিনে পেলাম।”

রাহুল দ্রাবিড়ের প্রশিক্ষণে ভারত ‘এ’ দলে খেলেছেন প্রিয়ঙ্ক। এ বার ডাক এল ভারতীয় দলে। দ্রাবিড়ের একটি কথা এখনও মাথায় রেখে দিয়েছেন প্রিয়ঙ্ক। তিনি বলেন, “প্রথম বার যখন ভারত ‘এ’ দলের অধিনায়ক হলাম, আমি খুব উৎফুল্ল ছিলাম। দ্রাবিড় স্যর আমাকে বলেন, ‘নিজের সাধারণ খেলাটা খেলো। তোমার ক্ষমতা রয়েছে, সেই জন্যই এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তোমাকে।’ এই কথাগুলো আমাকে খুব সাহায্য করেছে।”

রোহিত না থাকলেও প্রিয়ঙ্কের প্রথম একাদশে জায়গা পাওয়া নিশ্চিত নয়। লোকেশ রাহুল এবং ময়াঙ্ক আগরওয়াল দলে রয়েছেন। তাঁরাই কোহলীদের প্রথম পছন্দ হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget