টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ইতিহাস গড়ল যুক্তরাষ্ট্র | The United States made history in T20 cricket


প্রথমবার কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টির লড়াই। দ্বিপাক্ষিক সিরিজে প্রথমবার একটি টেস্ট খেলুড়ে দলকে নিজেদের আঙিনায় পাওয়া। যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেটের জন্য ম্যাচটি এমনিতেই ছিল ইতিহাস গড়ার। তবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটিতে তাদের ইতিহাস গড়ার পালা আটকে রইল না স্রেফ মাঠে নেমেই। শুরুর বিপর্যয় কাটিয়ে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে উপলক্ষ্য রাঙিয়ে রাখল তারা দারুণ এক জয় দিয়ে।

ফ্লোরিডায় ২ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বুধবার আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের জয় ২৬ রানে।

টেস্ট খেলুড়ে কোনো দেশের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম জয় এটি।

ম্যাচের শুরুতে ৫ ওভারের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে কাঁপছিল যুক্তরাষ্ট্র। পরের দিকের ব্যাটসম্যানদের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত তারা ২০ ওভারে তোলে ১৮৮ রান। আয়ারল্যান্ড যেতে পারে ১৬২ পর্যন্ত।

লডারহিলে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা যুক্তরাষ্ট দ্বিতীয় বলেই হারায় অধিনায়ক মোনাঙ্ক প্যাটেলকে। তৃতীয় ওভারে তারা হারায় বড় ভরসা জেভিয়ার মার্শালক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ৭টি টেস্ট, ২৪ ওয়ানডে ও ৬ টি-টোয়েন্টি খেলা ব্যাটসম্যান বেশ কিছুদিন ধরেই খেলেন যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে। আউট হন তিনি ১১ বলে ৪ রান করে।

পরের দুই ওভারে আরও দুটি উইকেট হারিয়ে তাদের রান হয়ে যায় ৪ উইকেটে ১৬। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন অভিষিক্ত সুশান্ত মোদানি ও গজানন্দ সিং।

শুরুতে কিছুটা দেখেশুনে খেলে জুটি গড়েন দুজন। ১০ ওভার শেষে রান ছিল ৪ উইকেটে ৫১।

দ্বাদশ ওভারে সিমি সিংয়ের বলে স্লগ সুইপে ছক্কা মেরে গতিপথ বদলানোর শুরু করেন গজানন্দ। ক্যারিবিয়ান বংশোদ্ভূত ব্যাটসম্যান পরের ওভারে দুটি ছক্কা মারেন কার্টিস ক্যাম্পারকে, পরের ওভারে আরেকটি বেন হোয়াইটকে।

হোয়াইটের পরের ওভারে আরেকটি ছক্কা মেরে গজানন্দ আউট হন ৫ ছক্কায় ৪২ বলে ৬৫ রান করে। মোদানির সঙ্গে তার জুটি থামে ১১০ রানে।

ততক্ষণে বেড়ে গেছে মোদানির ব্যাটের ধারও। ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই ব্যাটসম্যান করেন ৩৯ বলে ৫০। টি-টোয়েন্টি অভিষেকে পাঁচে নেমে ফিফটি করা ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান তিনি।

শেষ ওভারে মার্ক অ্যাডায়ারকে তুলাধুনা করেন মার্টি কেইন। দুটি করে চার ও ছক্কায় ওভার থেকে আসে ২৩ রান।

১৫ বলে ৩৯ রান করে অপরাজিত থাকেন কেইন। শেষ ৯ ওভার থেকে যুক্তরাষ্ট্র তোলে ১৩২ রান!

বড় লক্ষ্য তাড়ায় আয়ারল্যান্ড দ্বিতীয় ওভারে হারায় অ্যান্ডি বালবার্নিকে। আইরিশ অধিনায়ককে ফেরান ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের পরিচিত মুখ পেসার আলি খান।

আরেক ওপেনার পল স্টার্লিং ঝড়ো শুরু করলেও আউট হয়ে যান ১৫ বলে ৩১ রান করে। তিনে নেমে লর্কান টাকার এক প্রান্ত আগলে রাখলেও রানের গতি বাড়াতে পারেননি। পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা কেউ পারেননি প্রভাব রাখতে।

টাকার শেষ দিকে একটু গতি বাড়িয়ে অপরাজিত থাকেন ৪৯ বলে ৫৭ করে। কিন্তু দল ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় বেশ আগেই।

সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ বৃহস্পতিবার। এরপর দুই দল খেলবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

যুক্তরাষ্ট্র: ২০ ওভারে ১৮৮/৬ (মোনাঙ্ক ২, স্কট ৮, মার্শাল ৪, বেহেরা ০, মোদানি ৫০, গজানন্দ ৬৫, কেইন ৩৯*, নিসর্গ ০*; ম্যাককার্থি ৪-০-৩০-৪, অ্যাডায়ার ৪-০-৪৬-০, সিমি ৪-০-২৭-১, ক্যাম্পার ৪-০-৪১-০, হোয়াইট ৪-০-৩৬-১)।

আয়ারল্যান্ড: ২০ ওভারে ১৬২/৬ (স্টার্লিং ৩১, বালবার্নি ৪, টাকার ৫৭*, ক্যাম্পার ১৭, গেটকেক ১৯, রক ৭, ম্যাকক্লিন্টক ৯, অ্যাডায়ার ৯*; সৌরভ ৪-০-২৬-২, আলি খান ৪-০-৩০-২, কেইন ৪-০-৩৭-০, ইয়াসির ৪-০-৩৫-০, নিসর্গ ৪-০-২৭-১)।

ফল: যুক্তরাষ্ট্র ২৬ রানে জয়ী

সিরিজ: ২ ম্যাচ সিরিজে যুক্তরাষ্ট্র ১-০তে এগিয়ে।

ম্যান অব দা ম্যাচ: গজানন্দ সিং।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Holy Foods ads

Holy Foods ads

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget