বিউটি পার্লারে গিয়ে পা হারালেন তরুণী! | The young woman lost her legs in the beauty parlor!

পা থেকে মাথা পর্যন্ত সৌন্দর্য বাড়াতে তরুণ-তরুণীরা বিভিন্ন বিউটি সেলুনগুলোতে ছুটে থাকেন। এমনই এক তরুণী বিউটি পার্লারে গিয়েছিলেন তার পায়ের যত্ন নিতে।

সেখানে গিয়ে তিনি পেডিকিওর করাবেন বলে বিউটিশিয়ানদের জানান।  পেডিকিওর করার সময় হঠাৎ তার এক পা কেটে যায়। পায়ে জীবাণুর সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। এতে তার শিরাগুলোতেও ব্লক হয়ে যায়। অনেক দিন  ভোগার পর তিনি চিকিৎসককের কাছে যান। সেখানকার চিকিৎসক ওই নারীকে পা কেটে ফেলার পরামর্শ দেন।

এ ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায়।

ওই নারী ফ্লোরিডার বাসিন্দা ক্লারা শেলম্যান। তিনি ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ফ্লোরিডায় টাম্পা এলাকার ট্যামি’স নেইলস টু নামে এক পার্লারে গিয়ে এ দুর্ঘটনা শিকার হন।  

জানা গেছে, পেডিকিওরের সময় সেখানকার কর্মীর অসচেতনতার জন্য ক্লারার পা কেটে যায়। পরে সেখানে সংক্রমণ দেখা দেয়। ক্লারার আগে থেকেই পেরিফেরাল আর্টেরিয়াল ডিজিজ (পিএডি) থাকায় সংক্রমণ খুব দ্রুত তার পায়ে ছড়িয়ে পড়ে। পেরিফেরাল আর্টেরিয়াল ডিজিজের ক্ষেত্রে পায়ের মধ্যে থাকা শিরাগুলোতে ব্লক হয়ে যায়। ফলে পা সচল রাখার জন্য যে, পরিমাণ পুষ্টি ও অক্সিজেনের দরকার হয় সেটা হৃদযন্ত্র ও মস্তিষ্ক থেকে পায়ে পৌঁছায় না। পায়ের পেশি ও স্নায়ুগুলো সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না।  কয়েক মাসের মধ্যে সংক্রমণ এত বেশি ছড়িয়ে পড়ে যে ক্লারার পা চিকিৎসকরা কেটে ফেলতে বাধ্য হয়।  

এদিকে এক পেডিকিওরের কারণে জীবন বদলানোর প্রায় তিন বছর পর ট্যামি’স নেইলস টু প্রথমে ওই ঘটনার দায় নিতে অস্বীকার করে। পরে ভুলের কারণে এ দুঃখজনক ঘটে বলে নিজেদের দোষ স্বীকার করে প্রতিষ্ঠানটি। পরে ভুক্তভোগী ক্লারাকে ১৭ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ দেয় ওই পার্লারটি।  

লেবেলসমূহ:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget