সিগারেটের বদলে বাঁধাকপি: লকডাউনে চীনা শহরে পণ্য বিনিময় | Cabbage instead of cigarettes: Lockdown in the Chinese city of commodity exchange


চীনের জিয়ান শহরে কোয়ারেন্টিনে থাকা কিছু মানুষের খাদ্য সংকট চরম আকার ধারণ করেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা গেছে, খাবারের জন্য মানুষ টেক গ্যাজেট থেকে শুরু করে বিভিন্ন পণ্য বিনিময় করছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

২৩ ডিসেম্বর থেকে শহরটির প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ মানুষকে ঘরে বন্দি থাকতে হচ্ছে। বর্তমানে তারা খাবার কিনতেও বাইরে যেতে পারছেন না। সম্প্রতি অনেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই বিষয়ে অভিযোগ করছেন।

কর্তৃপক্ষ প্রতিটি বাড়িতে বিনামূল্যে খাবার সরবরাহ করছে। কিন্তু অনেকে অভিযোগ করছেন, তাদের সরবরাহ কমে যাচ্ছে কিংবা এখন পর্যন্ত কোনও ত্রাণ পাননি।

উইবোতে প্রকাশিত ছবি ও ভিডিওতে দেখা গেছে, মানুষ বাঁধাকপি নিতে সিগারেট দিচ্ছেন, আপেলের জন্য দিচ্ছেন ডিশ ওয়াশিং লিকুইড। সবজির জন্য স্যানিটারি প্যাডও বিনিময় করতে দেখা গেছে।

এক ভিডিওতে দেখা গেছে, এক বাসিন্দা এক প্যাকেট ইন্সট্যান্ট নুডলস ও দুটি গরম বানের জন্য বিনিময় করতে নিয়ে এসেছেন নিন্টেন্ডো সুইচ কনসোল ।

রেডিও ফ্রি এশিয়াকে ওয়াং নামের এক ব্যক্তি বলেন, একই ভবনের মানুষেরা একে অন্যের সঙ্গে পণ্য বিনিময় করছে। কারণ তাদের খাবারের জন্য যথেষ্ট খাদ্যদ্রব্য নেই।

প্রতিবেদনটিতে এক ব্যক্তি এক থালা চালের জন্য একটি স্মার্টফোন বিনিময় করতে আগ্রহী বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

এক উইবো ব্যবহারকারী বলেন, ‘অসহায় মানুষেরা বিনিময় যুগে এসে পড়েছে- তুলার বিনিময়ে আলু নিচ্ছেন’। আরেক ব্যবহারকারী এই পরিস্থিতিকে ‘আদিযুগে প্রত্যর্পণ’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

অনেকে প্রতিবেশীদের সদয় আচরণে আপ্লুত হওয়ার কথাও উল্লেখ করেছেন।

চীনের বর্তমান করোনা প্রাদুর্ভাবের এপিসেন্টার জিয়ান। সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে কর্তৃপক্ষ কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। অনলাইনে এমন পদক্ষেপের সমালোচনা হচ্ছে।

লেবেলসমূহ:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget