জোড়া সাফল্য ও জোড়া রিভিউ নষ্টের সেশন | Pairs of Pairs Success and Pairs Review Loss Sessions


এবাদত হোসেনের ডেলিভারিটি রক্ষণাত্মক খেলার চেষ্টা করেছিলেন ডেভন কনওয়ে। পরাস্ত হতেই আউটের আবেদন। এলবিডব্লুর আবেদন ভেবে আম্পায়ার সাড়া না দিলেও রিভিউটা বেশ দ্রুতই নেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

ভিডিও রিপ্লেতে দেখা গেল বল ব্যাটের কানা ছুঁয়েছে। আরেকটি রিভিউ নষ্টের হতাশা পেয়ে বসার আগেই ভিডিওতে দেখা গেল, বল কনওয়ের পায়ে লেগে বাতাসে ভাসতে ভাসতে গালিতে যেতেই ডাইভ দিয়ে লুফে নিলেন সাদমান ইসলাম। আউট!

সাদমানের বুদ্ধিমত্তায় নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে শতক তুলে নেওয়া কনওয়েকে ১৩ রানে ফেরাতে পারে বাংলাদেশ। তাঁর আগে ফিরেছেন অধিনায়ক টম লাথাম। এই ওপেনারকে তুলে নেন তাসকিন আহমেদ।

দ্বিতীয় সেশনে ২ উইকেট নেওয়ায় চা–বিরতি ভালোই লাগার কথা বাংলাদেশ দলের। তবে দুটি রিভিউ নষ্টের হতাশা পোড়াবে। চা–বিরতির আগে নিউজিল্যান্ড তাঁদের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৯ ওভারে ২ উইকেটে ৬৮ রান তুলেছে। ব্যাট করছেন রস টেলর (৪*) ও উইল ইয়াং (৩২*)। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে নেওয়া লিড থেকে ৬২ রানে পিছিয়ে স্বাগতিকেরা।

বে ওভালের উইকেটে আজ চতুর্থ দিনে বাঁক পাচ্ছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ২৪তম ওভারে তাঁর চতুর্থ বলটি কীভাবে বাঁক নিয়ে উইল ইয়াংয়ের ব্যাট, স্টাম্প এবং লিটন দাসের গ্লাভস ফাঁকি দিয়ে বেরিয়ে গেল, তা গবেষণার বিষয়।

বল ইয়াংয়ের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে গেলেও লিটনের পক্ষে ধরা খুব কঠিন ছিল। ইয়াং সে যাত্রায় বেঁচে যান। উইকেটে বাউন্স অসমান হওয়ায় তাসকিন ও ইবাদত হোসেনকে খেলতেও সমস্যা হচ্ছে কিউই ব্যাটসম্যানদের। ১৪ রানে তাসকিনের উঠে আসা বল খেলতে গিয়েই স্টাম্পে টেনে নেন লাথাম।

কনওয়ের উইকেটটি ইবাদতের পরিশ্রমের ফসল। ৯ ওভার বল করেন দ্বিতীয় সেশনে। স্টাম্পে বল রাখার পুরস্কার হিসেবেই উইকেটটি সাদমানের বুদ্ধিমত্তায় পেয়ে যান ইবাদত।

তবে এই সেশনে দুটি রিভিউ নষ্ট করেছে বাংলাদেশ। ইবাদতের বলে একবার ইয়াং লেগে খেলার চেষ্টা করলে বল তাঁঁর কোমরে লেগে লিটনের গ্লাভসে জমা পড়ে। আউটের আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলেও রিভিউ নেন মুমিনুল। তাতে লিটন ও ইবাদতের অতি আগ্রহী হয়ে ওঠা ভালোই ভূমিকা রেখেছে। ২৯তম ওভারে ঠিক একইভাবে রস টেলরের বিপক্ষেও রিভিউ নিয়ে লাভ হয়নি বাংলাদেশের। উল্টো আরেকটি রিভিউ নষ্ট হয়।

মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে আজ চতুর্থ দিনে সকালের সেশনে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৪৫৮ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ১৩০ রানের লিড পায় মুমিনুলের দল। বিদেশের মাটিতে ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে এটি সর্বোচ্চ রানের লিড বাংলাদেশের। নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ৩২৮ রানে অলআউট হয়।

লেবেলসমূহ:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget