বালিয়াডাঙ্গীতে গৃহবধুকে হত্যার পর ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ | Allegation of hanging after killing housewife in Baliadangi


ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে চিলি বনিক (৪২) নামে এক গৃহবধুকে হত্যার পর গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (০১ মার্চ) সকালে উপজেলার ধনতলা ইউনিয়নের ভান্ডারদহ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। দুপুরে বালিয়াডাঙ্গী থানা পুলিশ গৃহবধুর শয়ন ঘর থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। 


গৃহবধু চিলি বনিক ওই গ্রামের কামিনী বনিকের স্ত্রী ও রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ ইউনিয়নের মাস্টার পাড়া গ্রামের মৃত কুলিন চন্দ্র বনিকের মেয়ে। ঘটনার পর থেকে গৃহবধুর স্বামী ও তাঁর ভাইয়েরা গাঁ ঢাকা দিয়েছে। 


গৃহবধুর ভাই বিশ্ব বনিক ও সুজন বণিক জানান, গৃহবধুর স্বামী ও তাঁর ভাইয়েরা মিলে নির্যাতনের পর আমার বোনকে হত্যা করেছে। ঘটনাটিকে আত্মহত্যা হিসেবে চালিয়ে নেওয়ার জন্য গলায় ফাঁস লাগিয়ে দিয়ে ঝুলিয়ে দিয়েছে। এত বড় ঘটনা ঘটলেও আমাদেরকে কোন খবর না দিয়েই পুলিশ ডেকে মরদেহ থানায় নিয়ে এসেছে। এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। আমরা হত্যাকাণ্ডের বিচার চেয়ে আইনের আশ্রয় নিব। 

তবে গৃহবধুর ছেলে হেমন্ত বনিক জানান, গতকাল সোমবার সকালে বাবা ও মায়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তাতির সময় মায়ের চোখে ও মাথায় আঘাত লাগে। রাতে আমি ঔষধ কিনেও দিয়েছি। কিন্ত মা অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়েছে হয়তো বলে জানায় সে। 


বালিয়াডাঙ্গী থানার উপ-পরিদর্শক খাদেমুল করিম জানান, গৃহবধুর মাথা ও চোখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমরা মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। স্বজনদের অভিযোগ ও ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget