দৈনিক জনতা https://www.dainikjanata.com/2022/03/blog-post_392.html

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ মানেই পয়েন্টের নিশ্চয়তা নয়

 বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ মানেই পয়েন্টের নিশ্চয়তা নয়
Match against Bangladesh does not mean guarantee of points


মাসখানেক আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতে যখন সুপার লিগ পয়েন্ট তালিকায় ১০০ পয়েন্ট পাওয়া প্রথম দল হলো বাংলাদেশ, তখনো কত হিসাব-নিকাশ! ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ‘বাছাইপর্ব’ এই সুপার লিগে সেরা সাত দলের মধ্যে থাকতে পারবে তো বাংলাদেশ?


আফগানিস্তানের কাছে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটা বাংলাদেশ হেরে যাওয়ায় হিসাব-নিকাশে শঙ্কার পাল্লা আরও ভারী হয়েছে। তখন পর্যন্ত হিসাব, পরের সিরিজটাই দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে, যেখানে কখনো দক্ষিণ আফ্রিকাকে ওয়ানডেতে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ।

সেঞ্চুরিয়নে গতকাল প্রথম ওয়ানডেতে ৩৮ রানের জয়ে বাংলাদেশ ইতিহাসটা একটু বদলে দেওয়ায় হিসাব-নিকাশে কোনো আহামরি বদল আসেনি। তবে সুপার লিগ শেষে দুই দলের বিশ্বকাপে যাওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে দুই রকম ভাবনা জাগিয়েছে। বাংলাদেশ যেখানে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে অবস্থানটা আরেকটু সুসংহত করেছে, দক্ষিণ আফ্রিকার ২০২৩ বিশ্বকাপে সরাসরি সুযোগ পাওয়াই এখন সংশয়ে।


সিরিজের বাকি দুই ম্যাচে তাই জয় এখন খুব দরকার দক্ষিণ আফ্রিকার। তবে দলটির অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা সতর্ক। তাঁর সোজা কথা, বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ মানেই তো আর পয়েন্টের নিশ্চয়তা নয়!

১৩ দলের সুপার লিগে প্রতিটি দল ২৪টি করে ম্যাচ খেলবে, ১৬ ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের পয়েন্ট এখন ১১০। তালিকার দুই নম্বরে থাকা ইংল্যান্ডের চেয়ে ১৫ পয়েন্ট এগিয়ে তামিম-সাকিবরা।

 অবশ্য ম্যাচ জিতলেই ১০ পয়েন্ট বলে পয়েন্টের ব্যবধানটা অত বড় মনে হয় না। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের বাকি দুই ম্যাচের পর বাংলাদেশ আগামী মে মাসে সিরিজ খেলবে আয়ারল্যান্ডের মাটিতে, এরপর ২০২৩ সালের মার্চে দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডকে আতিথ্য দেবে।

আরো পড়ুন: সন্তানের সামনে গৃহবধূ গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতে মামলা

অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা? ১১ ম্যাচ শেষে মাত্র ৩৯ পয়েন্ট তাদের। ২০২৩ বিশ্বকাপের স্বাগতিক ভারতের পয়েন্ট তালিকায় অবস্থানের ভিত্তিতে প্রথম সাত কিংবা আট দল সরাসরি যাবে বিশ্বকাপে, এই মুহূর্তে সাত নম্বরে থাকা অস্ট্রেলিয়ার পয়েন্ট ৯ ম্যাচে ৬০, আটে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজের ১৫ ম্যাচে ৫০। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের পরের দুই ম্যাচ জিতলে (এবং নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষ করায় ধীরগতির কারণে পয়েন্ট না হারালে) দক্ষিণ আফ্রিকার পয়েন্ট হবে ৫৯।

সুপার লিগের নিয়ম অনুযায়ী, স্বাগতিক ভারত তো সরাসরি সুযোগ পাবেই বিশ্বকাপে, ভারত যদি পয়েন্ট তালিকার সেরা আট দলের মধ্যে থাকে, সে ক্ষেত্রে প্রথম আট দল সরাসরি যাবে বিশ্বকাপে। আর ভারতের অবস্থান ৮-এর নিচে হলে সুপার লিগ থেকে প্রথম সাত দল যাবে বিশ্বকাপে। 


১৩ দলের বাকি পাঁচ দল আনুষ্ঠানিক বাছাইপর্ব খেলবে নিচের স্তরের বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা আরও পাঁচ দলের সঙ্গে, ১০ দলের সেই বাছাইপর্ব থেকে ২ দল সুযোগ পাবে বিশ্বকাপে।


গতকাল বাংলাদেশের কাছে হারের পর দক্ষিণ আফ্রিকার সরাসরি বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়ার শঙ্কা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে ম্যাচের পরের সংবাদ সম্মেলনে। তাতে প্রোটিয়া অধিনায়ক টেম্বা বাভুমার উত্তর, ‘(সুপার লিগে) পয়েন্টের হিসাব করলে বলব, জানি না এই হার আমাদের কোথায় রেখেছে। শুধু এতটুকুই জানি, রোববারের ম্যাচটা জিততেই হবে, আর সেটিতে জিততে আমাদের তিন বিভাগেই আরও ভালো করতে হবে। এ কাজ ধারাবাহিকভাবে সব ম্যাচেই করে যেতে পারলে পয়েন্টের হিসাব এমনিই ঠিক হয়ে যাবে। বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলছি, সে কারণে তো আর পয়েন্ট পাব নিশ্চিত ধরে নিয়ে মাঠে নামতে পারি না।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের পর দক্ষিণ আফ্রিকাকে খেলতে হবে ভারত, ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

সুপার লিগ নিয়ে আরও যা জেনে নিতে পারেন

পয়েন্টের হিসাব কীভাবে

জয়ের জন্য ১০ পয়েন্ট। কোনো ফল না হলে দুই দলকে ৫ পয়েন্ট করে দেওয়া হবে। হেরে যাওয়া দল কোনো পয়েন্ট পাবে না। 

আরো পড়ুন: তেলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিলে গ্যাস বন্ধের হুমকি রাশিয়ার

তবে আরও কিছু নিয়ম এ ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলে।

১. পরিত্যক্ত ম্যাচের পয়েন্ট ভাগাভাগির ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম আছে। যদি আইসিসির ‘পিচ ও আউটফিল্ড পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়া’ অনুযায়ী মাঠ খেলার অনুপযুক্ত থাকে, সে ক্ষেত্রে সফরকারী দলই পুরো ১০ পয়েন্ট পাবে।

২. কোনো দলের ওভাররেট ধীর হলে, অর্থাৎ ৫০ ওভার বোলিংয়ের নির্ধারিত সময়ের চেয়ে বেশি লাগলে সে ক্ষেত্রে ম্যাচের পয়েন্ট থেকে ১ পয়েন্ট কেটে নেওয়া হবে। এখন পর্যন্ত ভারত (১ ম্যাচ), দক্ষিণ আফ্রিকা (১ ম্যাচ) ও শ্রীলঙ্কা (৩ ম্যাচ) স্লো ওভাররেটের কারণে পয়েন্ট হারিয়েছে।


৩. কোনো ম্যাচ টাই হলে, অর্থাৎ দুই দলেরই ইনিংস সমান রানে শেষ হলে সে ক্ষেত্রে সুপার ওভার হবে। সুপার ওভার শেষেও সমতা থাকলে যতক্ষণ পর্যন্ত না বিজয়ী নির্ধারিত হয়, ততক্ষণ পর্যন্ত একটি করে সুপার ওভার হতেই থাকবে।


দুই দলের পয়েন্ট সমান হলে

সুপার লিগের পয়েন্ট তালিকায় যদি দুই দলের পয়েন্ট সমান হয়, সে ক্ষেত্রে কী হবে? সহজ নিয়ম! প্রথমে দেখা হবে সমান পয়েন্ট পাওয়া দুই দলের মধ্যে কারা বেশি ম্যাচ জিতেছে। সেখানেও মিলে গেলে হিসাবে আসবে নেট রানরেট। সেখানেও পার্থক্য তৈরি না হলে? ২০২০ সালের ১ জুলাই আইসিসির ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে দুই দলের মধ্যে যারা এগিয়ে ছিল, তারাই চলে যাবে বিশ্বকাপে। 

আরো পড়ুন:






অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

দৈনিক জনতা বাংলাদেশসহ বিশ্বের সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম