ফরিদপুরের ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতা ও আধিপত্য নিয়ে ২ যুবককে কুপিয়ে হত্যা এবং আহত ১

ফরিদপুরের  ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতা ও আধিপত্য নিয়ে ২ যুবককে কুপিয়ে হত্যা এবং আহত ১
Two youths were hacked to death & one was injured in Faridpur Bhanga due to previous hostility and domination


ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার তুজারপুর ইউনিয়নের জান্দি গ্রামে পূর্ব শত্রুতা ও এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২ যুবককে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মারাত্মক আহত হয়েছেন আরও একজন। 


 বৃহস্পতিবার  রাত ১০টার দিকে উপজেলার তুজারপুর ইউনিয়নের ওই গ্রামের পার্শ্ববর্তী  পোদ্দারবাজার নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিরা হলেন, উপজেলার জান্দী গ্রামের  মতিউর রহমান শরীফের ছেলে ছলেমান শরীফ (৩৮) ও কালাম মাতবরের ছেলে কামরুল মাতবর (৩২)। একই গ্রামের গুরুতর আহত ব্যক্তি হলেন মমিন উদ্দিনের ছেলে আমিনুল ইসলাম (৪০)।

আরো পড়ুন: সন্তানের সামনে গৃহবধূ গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতে মামলা

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,  স্থানীয় আলতাফ মাতবর পক্ষের জামাল শেখের সঙ্গে ইমারত মাতবরের পক্ষের কামরুল মাতুব্বরদের সাথে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিল।  সেই ধারাবাকিতায় বৃহ¯পতিবার রাত ১০টার দিকে ওই তিন যুবক পোদ্দারবাজার থেকে মোটরসাইকেলযোগে নিজ বাড়ি জান্দির উদ্দেশ্যে রওনা হন। এ সময় বাজার পার হতেই পূর্ব পরিকল্পিতভাবে প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের গতিরোধ করে। এ সময় জামাল শেখ, আলতাফ মাতবর, সুমন শেখ, শাহীন চৌধুরী, আবুল খায়ের মুন্সি, আজিজুল শরীফ, বাকী শেখসহ তাদের সহযোগীরা ধারাল অস্ত্র দিয়ে ওই তিন যুবককে উপর্যিপরি কুপিয়ে জখম করে ফেলে রেখে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ছলেমান শরীফ মারা যান। পরে গুরুতর আহত অন্য দুজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে ভাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কামরুলের অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নেওয়ায় পথে রাত আড়াইটার দিকে তার মৃত্যু হয়।


ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম রেজা জানান, গ্রাম্য দলাদলিতে দু,পক্ষের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে মনে হয়।  সকালে দুই যুবকের মরদেহ ফরিদপুর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। 


খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে  ফরিদপুর পুলিশ সুপার আলীমুজ্জামান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভাঙ্গা সার্কেল) ফাহিমা কাদের চৌধুরী  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।  


ফরিদপুরের পুলিশ সুপার আলীমুজ্জামান এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবারের সদস্যদের উদ্যেশ্যে বলেন, যারা হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত তাদের খুজে বের করে অচিরেই আইনের আওতায় আনা হবে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেউ এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি করলে তাদের বিরুদ্বেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঘটনার পর থেকে  পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ, ডিবি মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে নিহতের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়,স্বজনদের আহাজারিতে এলাকায় বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে।



আরো পড়ুন:






একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget