সোনায় মোড়া এমিরেটস প্যালেসে থাকার খরচ কত?

 



সোনায় মোড়া এমিরেটস প্যালেসে থাকার খরচ কত?


সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবির জনপ্রিয় পাঁচ তারকা হোটেল এমিরেটস প্যালেস। অ্যারাবিক স্টাইল, আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাওয়া আতিথেয়তা আর স্থানীয় নিজস্ব অভিজ্ঞতার জন্য বিশ্বখ্যাত এই হোটেল। দেখে নেওয়া যাক এই হোটেলের অন্দর। আর জেনে নেওয়া যাক এই হোটেল সম্পর্কে নানা তথ্য।

এই হোটেলের নির্মাণকাজে পাঁচ বছর ধরে আবুধাবি সরকারের খরচ হয়েছে ৩ বিলিয়ন ডলার বা ২৮ হাজার ২৯৫ কোটি টাকাএই হোটেলের মূল মালিক আবুধাবি সরকার। ২০০১ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে শুরু হয় এই হোটেলের পরিকল্পনা। ২০০৫ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত হোটেলটি কেমপিনস্কি হসপিটালিটি কোম্পানির দায়িত্বে ছিল

২০২০ সালের ১ জানুয়ারি মান্দারিয়ান ওরিয়েন্টালের হোটেল গ্রুপের তত্ত্বাবধানে সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়। মান্দারিয়ান নিজেদের বেতন রেখে বাকি অর্থ আবুধাবি সরকারের তহবিলে জমা করেহোটেলটির মূল ভবন ১ কিলোমিটার লম্বা। ১০০ হেক্টর জায়গাজুড়ে রয়েছে এই হোটেলের বাগানএই হোটেলের ডিজাইন করেছে মার্কিন স্থপতি জর্জ উইম্বারলির বিশ্বখ্যাত ফার্ম ডাব্লিউএটিজি আর্কিটেক্টস। 

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই কোম্পানির অফিস আছে। এমিরেটস হোটেলের ডিজাইনে সমতা, ভূগোল, অনুপাত, ছন্দ—এসব ক্ষেত্রে ইসলামি স্থাপত্যরীতি অনুসরণ করা হয়েছে। মাঝখানের গম্বুজে নানান জ্যামিতিক নকশা ফুটে উঠেছে। এ ছাড়া ভবনজুড়ে রয়েছে ১১৪টি মাঝারি ও ছোট আকৃতির গম্বুজএই হোটেলে রয়েছে ৩৯৪টি থাকার ঘর। 

এর ভেতর ৯২টি সুইট ও ২২টি রেসিডেন্সিয়াল স্যুইট। এসব স্যুইট তৈরিতে মার্বেলের সঙ্গে ব্যবহার করা হয়েছে সোনা। ভবনের মাঝখানে যে বিশাল গম্বুজ রয়েছে, সেটিও মার্বেল আর স্বর্ণ দিয়ে তৈরিহোটেল তৈরিতে ব্যবহৃত সোনা ‘স্বর্ণপাত’ আকারে ইতালি থেকে আনা হয়েছে। তারপর সেগুলো প্রসেস করে আরও সুন্দর আর ব্যবহার উপযোগী করে গড়ে তোলা হয়েছে

আরো পড়ুন:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget