Articles by "বিঙ্গান-ও-প্রযুক্তি"


মোবাইল জগতের একসময়ের রাজা ব্ল্যাকবেরি ফোনের অধ্যায় শেষ হচ্ছে চলতি মাসের ৪ জানুয়ারি। এদিন ব্ল্যাকবেরি নিজস্ব সফটওয়্যার চালিত ফোন বা ট্যাবলেটে অপারেটিং সিস্টেম ৭.১ এবং তার আগের সংস্করণ, একইসাথে ওএস ১০ ডিভাইসগুলোতে প্রধান প্রধান সেবা বন্ধ হয়ে যাবে।

একইদিনে কোম্পানির ট্যাবলেট ‘প্লেবুক’ এর অধ্যায়ও শেষ হচ্ছে। ব্ল্যাকবেরি ফোনের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম বন্ধ হওয়ার ফলে জনপ্রিয় ফিচার যেমন জরুরি কলিং, ফোন কল, ডেটা চালু থাকবে- এমন গ্যারান্টিও দিচ্ছে না প্রতিষ্ঠানটি। যার ফলে গ্রাহকের ব্যবহার করা ফোনটি অকেজো হয়ে যাবে।

অবশ্য অবাক হওয়ার কিছু নেই। ২০১৯ সালেই ব্ল্যাকবেরি তাদের অ্যাপ স্টোর এবং জনপ্রিয় মেসেঞ্জার বিবিএম বন্ধ করে দেয়। ফলে ব্ল্যাকবেরির আর ফিরে আসার কোনো সম্ভাবনাই নেই।

একের পর এক ব্যর্থতায় বন্ধ হতে চলেছে ব্ল্যাকবেরি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আধুনিক প্রযুক্তিতে নিজেদের মানিয়ে নিতে না পারায় বাজার হারিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।


দুই বছরের বেশি সময় পরীক্ষার পর সবার জন্য উন্মুক্ত হলো মেটার ভিআর দুনিয়া ‘হরাইজন ওয়ার্ল্ডস’। এই অ্যাপটির ডিজিটাল জগতকে আখ্যা দেওয়া হচ্ছে ‘সোশাল ভার্চুয়াল রিয়ালিটি স্পেস’ হিসেবে। শুরুতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডার ১৮ বছর বা তার বেশি বয়সী ব্যক্তিরা আমন্ত্রণ ছাড়াই বিনামূল্যে কোয়েস্ট অ্যাপ অ্যাক্সেস করতে পারবেন।

অ্যাপটিতে মূল গেইমের পাশাপাশি ব্যবহারকারীরা নিজের ইচ্ছেমতো মিনি-গেইম নির্মাণ করতে পারবেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। কাজের ধরনের হিসাবে রোব্লক্স এবং কন্টেন্ট নির্মাতার উপর নির্ভরশীল অন্যান্য অ্যাপের সঙ্গে মিল রয়েছে হরাইজন ওয়ার্ল্ডসের।

তবে নির্মাতাদের সরাসরি আর্থিক সুবিধা নেওয়ার কোনো সুযোগ আপাতত নেই অ্যাপটিতে। তার বদলে, এক কোটি ডলারের বিশেষ ‘নির্মাতা তহবিল’ গঠন করেছে মেটা। অ্যাপের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন প্রতিযোগিতা জিতলে ওই তহবিল থেকে পুরষ্কারের অর্থ পাবেন নির্মাতারা।

মেটা’র অকুলাস কোয়েস্ট ২ হেডসেটের ক্রেতারা ‘হরাইজন ওয়ার্ল্ডস’ ব্যবহার করতে পারবেন বিনা খরচে। একসঙ্গে ২০ জনের সঙ্গে হ্যাং আউট করা যাবে হরাইজন ওয়ার্ল্ডসে। এই অ্যাপ ব্যবহার করার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে ফেসবুক অ্যাকাউন্টের। ১৮ বা তার বেশি বয়সী যে কেউ ভার্চুয়াল রিয়ালিটি জগতটিতে নিজের ভাসমান অ্যাভাটার তৈরি করতে পারবেন। তবে অ্যাপটিতে কেবল মাত্র দেহের উপরের অংশই অ্যাভাটার হিসেবে দেখা যাবে।

গেমাররা যেন বাড়তি কোনো ডাউনলোড ছাড়াই সহজে ওই টুলগুলো ব্যবহার করতে পারেন সেজন্য নির্মাণ টুলগুলো সরাসরি ভার্চুয়ালি রিয়ালিটি গেমের মধ্যেই দেওয়ার কথা জানিয়েছে বিবিসি।

হরাইজন ওয়ার্ল্ডসে উড়ে বেড়াতে পারবেন গেইমার। গাছ বা অন্যান্য ‘আইটেম’ নির্মাণকাজে ব্যবহার করে নিজের আলাদা ‘কাস্টম এনভায়রনমেন্ট’ বানাতে পারবেন তারা। আর নিজের তৈরি গেইমের নিয়ম নির্ধারণের জন্য আগে থেকে লিখে রাখা কোড ব্যবহার করতে পারবেন গেমাররা।

আর এই কর্মকাণ্ডের সবই করা যাবে ওই ভার্চুয়াল রিয়ালিটি দুনিয়ার মধ্যেই, প্রয়োজন পড়বে না কোনো আলাদা কম্পিউটার স্ক্রিনের।প্রায় একই প্রক্রিয়ায় কাজ করছে অন্যান্য ভিআর নির্মাতাদের অনেকে। গেইমারদের জন্য নিজস্ব ‘রুম’ নির্মাণের সুযোগ দেয় ভিআর সেবা ‘রেক রুম’। নিজস্ব রুমে অন্যদের সঙ্গে গেইম খেলা বা আলাপাচারিতার সুযোগ পান ব্যবহারকারী।

ফেসবুক নাম পাল্টে ‘মেটা প্ল্যাটফর্মস ইনকর্পোরেটেড’ হওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটির যে পণ্য বা সেবাগুলো বাজারজাত করেছে। তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে ‘হরাইজন ওয়ার্ল্ডস’কে। নাম পরিবর্তনের সময়েই একাধিক ডিজিটাল দুনিয়াকে সংযুক্ত করে ‘মেটাভার্স’ নির্মাণ লক্ষ্যের কথা বলেছিল প্রতিষ্ঠানটি।

অ্যাপটি বেটা পর্যায়ে থাকা অবস্থাতেই “কয়েক হাজার” ভার্চুয়াল জগত ব্যবহারকারীরা তৈরি করে ফেলেছেন বলে দাবি করছে মেটা। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে একটি প্রাইভেট বিটা হিসাবে প্রথম ঘোষণা করা হয়েছিল।

সূত্র: দ্য ভার্জ



করোনা চিকিৎসায় বিশ্বের প্রথম মুখে খাওয়ার ওষুধ ‘মোলনুপিরাভির’ দেশে নিয়ে এলো স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। ‘মোলভির’ নামের ক্যাপসুলটি আগামী ১৩ নভেম্বর থেকে বাজারে পাওয়া যাবে। ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানটি এই তথ্য জানিয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে ওষুধটির মোড়ক উন্মোচন করেন স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের পরিচালক (সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট এবং টেকনিক্যাল সার্ভিসেস ডিপার্টমেন্ট) এরিক এস চৌধুরী। ওষুধের কার্যকারিতার দিকটি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘আমাদের মূল উদ্দেশ্য হলো, এই ওষুধের মাধ্যমে হাসপাতালগুলোর ওপর চাপ কমানো। এটা করতে পারলে বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যুর হারও কমবে।’

অনুষ্ঠানে ‘মোলভির’ সম্পর্কিত বৈজ্ঞানিক তথ্য উপস্থাপন করেন স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের বিপণন বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার মো. আতিকুজ্জামান। তিনি জানান, গুণগত মানের দিক থেকে ‘মোলভির’ ক্যাপসুল অনেকাংশে এগিয়ে রয়েছে। দ্রুত দ্রবণীয় হওয়ায় এটি ৩০ মিনিটেই কাজ শুরু করে। এছাড়া এর ফর্মুলেশনে সোডিয়াম না থাকায় কিডনি ও হৃদরোগীদের জন্য নিরাপদ। 

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিপণন বিভাগের পরিচালক আহমেদ কামরুল আলম। এছাড়া আরও ছিলেন বিক্রয় বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার মাহমুদুর রহমান ভূঁইয়াসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

গত ৮ নভেম্বর স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডকে ‘মোলনুপিরাভির’ উৎপাদন ও বাজারজাতকরণের জরুরি অনুমোদন দেয় সরকারের ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর। জরুরি ব্যবহারের জন্য এই অ্যান্টি-ভাইরাল ওষুধের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। করোনা চিকিৎসায় এটাই প্রথম ওষুধ, যা মুখে সেবন করা যাবে।


শিক্ষার্থীদের ব্যবহারের জন্য উইন্ডোজ ১১ অপারেটিং সিস্টেমের নতুন একটি সংস্করণ ছাড়ার ঘোষণা দিল মাইক্রোসফট। গতকাল মঙ্গলবারের ঘোষণায় সেটিকে ‘উইন্ডোজ ১১ এসই’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়। ডেল বা এইচপির মতো কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো নতুন অপারেটিং সিস্টেমের (ওএস) কম্পিউটার বাজারে তো ছাড়বেই, মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকেও নতুন একটি ল্যাপটপ কম্পিউটারের ঘোষণা এসেছে। ‘সারফেস ল্যাপটপ এসই’ মডেলের ল্যাপটপটিতে আগে থেকেই উইন্ডোজ ১১ এসই ইনস্টল করা থাকবে। ল্যাপটপটির দাম শুরু হচ্ছে ২৪৯ ডলার থেকে, বাজারে আসার কথা রয়েছে ২০২২ সালের শুরুর দিকে।

সিএনবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অপারেটিং সিস্টেমের বাজারে নিজেদের অবস্থান আরও পোক্ত করতেই মাইক্রোসফটের এমন উদ্যোগ বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনারের তথ্যানুযায়ী, ২০২০ সালে বাজারে আসা পার্সোনাল কম্পিউটারগুলোর ৮৩ শতাংশে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ছিল, আর গুগলের ক্রোম ওএস-চালিত কম্পিউটার ছিল ১০ শতাংশ। গুগল বেশ পিছিয়ে থাকলেও ক্রমবর্ধমান বাজার হিস্যা মাইক্রোসফটকে ভাবিয়ে তুলেছে, আর সে কারণেই তুলনামূলক কম দামের ল্যাপটপগুলোতে মনোযোগী হলো তারা।


 করোনাকালে ঘরে থেকে অনলাইনে ক্লাস চালাতে শিক্ষার্থীদের জন্য ল্যাপটপের চাহিদা বেড়ে যায়। দাম কম হওয়ায় শিক্ষার্থীরাও ক্রোমবুকে ঝুঁকতে শুরু করে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করলেও অনলাইন ক্লাসের রীতি এখনই বন্ধ হচ্ছে না। আর সে জন্যই শিক্ষার্থীদের সহজে ব্যবহারের জন্য এবং তাদের কথা মাথায় রেখে উইন্ডোজের সংস্করণটির ঘোষণা দিল মাইক্রোসফট।

সহজে ব্যবহার করার জন্য নতুন উইন্ডোজ ‘অপশন’ কম রাখছে মাইক্রোসফট। যেমন এক ঘরানার কেবল একটি অ্যাপ থাকবে। মনোযোগে ব্যাঘাত যেন না ঘটে, সে জন্য অ্যাপগুলো সচরাচর ফুলস্ক্রিন মোডে চালু হবে ইত্যাদি।

মাইক্রোসফট অফিস স্যুটের সফটওয়্যারগুলো এখন সাধারণত ইন্টারনেটে যুক্ত হয়ে ব্যবহার করতে হয়। তবে সব শিক্ষার্থীর বাড়িতে ভালো ইন্টারনেট সংযোগ না-ও থাকতে পারে। উইন্ডোজ ১১ এসইতে এই সফটওয়্যারগুলো অফলাইনে চালানো যাবে। ইন্টারনেটে যুক্ত হলে সেগুলো হালনাগাদ করে নেবে উইন্ডোজ। তা ছাড়া নিরাপত্তার জন্য উইন্ডোজ ১১ এসইতে চলা কম্পিউটারগুলোতে কেবল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আইটি অ্যাডমিনরা সফটওয়্যার ডাউনলোড ও ইনস্টল করতে পারবেন।

মাইক্রোসফটের নতুন সারফেস ল্যাপটপ এসইর প্রাথমিক মডেলটিতে ১১ দশমিক ৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে, ইনটেল সেলেরন প্রসেসর, ৪ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ৬৪ গিগাবাইট স্টোরেজ আছে। দাম ২৪৯ ডলার।

বিশেষ করে স্কুলে ব্যবহারের জন্য উইন্ডোজ এবং ল্যাপটপটি বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দেওয়া হলো
বিশেষ করে স্কুলে ব্যবহারের জন্য উইন্ডোজ এবং ল্যাপটপটি বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দেওয়া হলো
মাইক্রোসফট

বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য কেনা কম্পিউটারগুলোতেও আগে থেকে উইন্ডোজ ১১ এসই ইনস্টল করার পরিকল্পনা মাইক্রোসফটের। আর সে কারণে উইন্ডোজ ১১ এসই চালিত ডিভাইসগুলো বেশির ভাগ আগামী বছরের শুরুতে বাজারে আসা শুরু করবে। স্কুলগুলো সচরাচর সে সময়ে নতুন কেনাকাটার জন্য বাজেট নির্ধারণ করে থাকে।


 ইন্টারনেটে না থাকলেও চালানো যাবে ফেসবুক ও মেসেঞ্জার। তবে আপাতত সেটা গ্রামীণফোন গ্রাহকই করতে পারবেন। এ জন্য মেটার সাথে পার্টনারশিপে টেক্সট-ওনলি ফেসবুক ও ডিসকভার চালু করেছে গ্রামীণফোন।

 
এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গ্রামীণফোন জানিয়েছে, টেক্সট-ওনলি ফেসবুকের মাধ্যমে গ্রামীণফোনের গ্রাহকেরা তাঁদের ইন্টারনেট শেষ হয়ে গেলেও পরবর্তী ব্যালেন্স টপআপ করার আগ পর্যন্ত ফেসবুক ও মেসেঞ্জারের টেক্সট-ওনলি সংস্করণে কানেক্টেড থাকতে পারবেন। এ ছাড়া মোবাইল ওয়েব ও অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ‘ডিসকভার’ গ্রামীণফোন গ্রাহকদের ১৫ মেগাবাইট ডেইলি ব্যাল্যান্সের মাধ্যমে কোনও ডেটা চার্জ ছাড়াই ইন্টারনেট ব্রাউজ করার সুযোগ করে দেবে।

এর পাশাপাশি গ্রাহকেরা ডিসকভারের মাধ্যমে লো-ব্যান্ডউইথ ফিচার যেমন ফ্রি ডেটা দিয়ে বার্তা ও আইকন দেখতে পারবেন।
 
বিটিআরসি আয়োজিত আজ মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার আনুষ্ঠানিকভাবে টেক্সট-ওনলি ফেসবুক ও ডিসকভার উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে আর উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. খলিলুর রহমান এবং মেটা ও মোবাইল অপারেটরদের প্রতিনিধিরা।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘কানেকটিভিটি নিশ্চিত করার মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক কার্যক্রম চালু রাখতে সহায়তা করছে। আমি সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। ইন্টারনেট ছাড়া ফেসবুক ব্যবহার একটি অসাধারণ উদ্যোগ। প্রান্তিক জনগণের তথ্য আদান-প্রদান এবং কালেকটিভিটি নিশ্চিত করে ডিজিটাল ডিভাইড কমাতে এটি সহায়তা করবে।’
 
গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান বলেন, ‘সর্বস্তরের মানুষের জন্য ডিজিটাল সমাধানের সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করতে গ্রামীণফোন উদ্ভাবন ও বিনিয়োগের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। ডিজিটাল প্রযুক্তি যথাযথ ব্যবহারের লক্ষ্যে বিশ্বের অন্যতম বড় ফেসবুক ইউজার বেসের প্রয়োজনীয়তা পূরণে একইসাথে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের সহজলভ্যতা নিশ্চিত করাতেই মেটা ও নিয়ন্ত্রক সংস্থার সাথে যৌথ উদ্যোগ আজকের এই উন্মোচন।’
 
মেটার এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড অপারেটর পার্টনারশিপের ডিরেক্টর পল কিম বলেন, ‘মানুষকে কানেক্টেড থাকতে সাহায্য করা এবং ইন্টারনেটে শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের মতো গুরুত্বপূর্ণ রিসোর্সে তাঁদের ধারাবাহিক অ্যাক্সেস নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের মানুষের জন্য আরও উন্নত কানেক্টিভিটি এবং অ্যাক্সেস নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এই প্রোগ্রামগুলোতে অবদান রাখতে পেরে আমরা কৃতজ্ঞ।’

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget