Articles by "রাজনীতি"

 


ফরিদপুর আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে র‍্যালী ও আলোচনা সভা


ফরিদপুরে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয় 

আজ বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসক চত্বর হতে একটি র‍্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আশেকুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক  অতুল সরকার, সভায় বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  সুমন রঞ্জন সরকার, সরকারী রাজেন্দ্র কলেজের ইংরেজী বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জনাব মোঃ রেজভী জামান, এনডিসি জনাব মোঃ আশিকুর রহমান, জেল সুপার মোঃ আল মামুন, আনসার ভিডিপি কমান্ডার জনাব নাদিরা বেগম সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর ছাত্রছাত্রী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

 এ সময় বক্তারা সাধারণ জনগণের তথ্য প্রাপ্তি নিশ্চিৎ করতে সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের দায়িত্ব প্রাপ্ত ব্যাক্তিদেরকে আরও সদয় হওয়ার আহ্বান জানান। এছাড়াও তারা সাধারণ জনগণকে তথ্য অধিকার সম্পর্কে সচেতন করতে প্রচার প্রচারণার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন।

মাহফুজুর রহমান বিপ্লব,ফরিদপুর প্রতিনিধি।

আরো পড়ুন:


 


নওগাঁয় দলীয় সমাবেশে বিএনপি নেতা শাহীন শওকত


বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (রাজশাহী বিভাগ) শাহীন শওকত বলেছেন, শেখ হাসিনার পতন ঘটাতে রাজপথে জনতার ঢল নেমে গেছে। হেলমেট লীগ নামিয়ে জনতার এই ঢল ঠেকানো যাবে না। শেখ হাসিনার পতন না হলে রাজপথ ছাড়বে না।

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, লুটপাট, বিএনপির নেতাকর্মীদের গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলা বিএনপি আয়োজিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার ভাবিচা ফুটবল মাঠে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল ৪টায় শুরু হওয়া এই সমাবেশ চলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত। 

ঢাকার বনানী ও নোয়াখালীতে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর আওয়ামী লীগের কর্মীদের হামলার সমালোচনা করে শাহীন শওকত বলেন, ‘রাজপথে জনতার ঢল নেমে গেছে। গুলি চালিয়ে, হামলা করে জনতার এই ঢল ঠেকানো যাবে না। বিএনপির নেতাকর্মীদের বুকের তাজা রক্ত দিয়ে রাজপথ রঞ্জিত করেছে। স্বৈরাচার সরকারকে হঠাতে হলে আরও রক্ত দিতে হবে এবং আমরা তার জন্য প্রস্তুত আছি। রাজপথে নেমেছি আর ঘরে ফিরতে চাই না।’

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের ১৪ বছরে গণতান্ত্রিক আন্দোলন করতে গিয়ে যত হামলা, মামলা, গুলি করে হত্যাকাণ্ড হয়েছে প্রত্যেকটির হুকুমের আসামি করা হবে শেখ হাসিনাকে। প্রতিটি গুলি, প্রতিটি রক্ত বিন্দুর জবাব নেওয়া হবে।

নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীন ছাড়া বিএনপি কখনোই নির্বাচনে যাবে না উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া বাংলাদেশের মাটিতে কোনো নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। খালেদা জিয়া মুক্ত করা না হলে, তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে বিএনপি কখনোই আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে না।

নিয়ামতপুর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক ইছাহাক আলী সরদারের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নওগাঁ-১ (নিয়ামতপুর, পোরশা ও সাপাহার) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ডা. ছালেক চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নওগাঁ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক, নওগাঁ জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু প্রমুখ।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, ‘আজকের এই সমাবেশ থেকে আমাদের শপথ নিতে হবে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান ছাড়া বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না 62। আগামীতে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন না হলে বাংলাদশে কোনো নির্বাচন অফিস থাকবে না।’

বর্তমান সরকারকে নিশি রাতের সরকার উল্লেখ করে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘নিশি রাতের সরকারকে হঠাতে মানুষ জেগে উঠেছে। সবার একটাই কথা শেখ হাসিনার পতন চাই। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। এই সরকারের অনিয়ম-দুর্নীতির কারণে মানুষ অতীষ্ঠ হয়ে পড়েছে। তারা এই দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায়।’


আরো পড়ুন:


  1. নিয়ন্ত্রণহীন ভোজ্য তেলের বাজার
  2. Afran Nisho: ভারতীয় ওয়েব সিরিজে আফরান নিশো
  3. জয়নাল হত্যা মামলার সব আসামি খালাস; পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থার নির্দেশ
  4. ফেনীর দাগনভূঁঞায় মোটরসাইকেল চোরাই চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার 
  5. ফেনীর ফুলগাজীতে দুই মহিলা ছিনতাইকারী গ্রেফতার
  6. বালিয়াডাঙ্গীতে এক পরিবারের চার সন্তানই প্রতিবন্ধী
  7. পুতিনের বেপরোয়া পদক্ষেপ ইউরোপকে সরাসরি হুমকি দিচ্ছে 
  8. Russia Ukrain: বাংলাদেশি জাহাজে হামলার জন্য ইউক্রেনকে দুষছে রাশিয়া 
  9. সাড়ে ১২ কোটি মানুষ টিকার আওতায়
  10. ইউক্রেনে নাজুক অবস্থায় পড়ে গেছি: প্রতিমন্ত্রী


 



ঠাকুরগাঁওয়ে ফেনসিডিল ও গাজাঁসহ দুই মাদক কারবারি আটক 


ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়ায় একশ (১০০) বোতল ফেনসিডিল ও একশ (১০০) গ্রাম গাঁজা সহ দুই জন মাদক কারবারিকে আটক করেছে রুহিয়া থানা পুলিশ। 


বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১৪ নং রাজাগাঁও ইউনিয়নের নামাজপড়া নামক এলাকা থেকে পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার হামিদুল ইসলামের ছেলে দুলাল ইসলাম (২৮) কে ১০০ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক করে পুলিশ।


অন্যদিকে একই দিনে রুহিয়া থানার ঘনিবিষ্টপুর গ্রামের নয়ন ইসলামের স্ত্রী মেরিনা বেগম (২২) কে ১০০ গ্রাম গাঁজা সহ আটক করেছে পুলিশ। 


বিষয়টি নিশ্চিত করে রুহিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল রানা বলেন, রুহিয়া থানা পুলিশের একটি চৌকস টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১০০ বোতল ফেনসিডিল সহ দুলাল ইসলাম এবং রুহিয়া ট্যাংলড়ি এলাকা থেকে ১০০ গ্রাম গাঁজা সহ মেরিনা বেগমকে আটক করা হয়। আসামিদের বিরুদ্ধে থানায় মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। 


তাদের দুই জনকে আটক করে থানায় রাখা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে প্রেরণ করা হবে বলেও জানান তিনি। 


আরো পড়ুন:



 



বিএনপি আন্দোলনে থাকবে, তবে এখনই বড় কর্মসূচি নয়


জ্বালানি তেলের রেকর্ড মূল্যবৃদ্ধি ও খাদ্যপণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ার জন্য সরকারই দায়ী বলে মনে করে বিএনপি। দলটির নেতারা বলছেন, খাদ্য ও জ্বালানির দাম নিয়ে বিশ্বব্যাপী যে সংকট, তার সঙ্গে বাংলাদেশের বর্তমান সংকটের মিল নেই। দেশের চলমান অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে ক্ষমতাসীনদের সীমাহীন দুর্নীতি এবং বিদেশে অর্থ পাচারের কারণে।


বিএনপির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি, গুম, খুনসহ সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে সোচ্চার থাকবে বিএনপি। তবে দলটি এখনই হরতাল বা অবরোধের মতো বড় কর্মসূচিতে যাবে না।


জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি এবং দলের দুই নেতা হত্যার প্রতিবাদে গতকাল সোমবার দুই দিনের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে বিএনপির পক্ষ থেকে। এর মধ্যে ১১ আগস্ট ঢাকার নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে এবং ১২ আগস্ট দেশের সব মহানগর ও জেলায় প্রতিবাদ সমাবেশ হবে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।


অন্যদিকে বর্তমানে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিজনিত সংকটও সরকারের সৃষ্ট বলে মনে করে বিএনপি। নেতাদের যুক্তি হলো, বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সরকার কেন্দ্র বাড়িয়েছে। কিন্তু বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য যে জ্বালানির প্রয়োজন হয়, তার জোগান দিতে সরকার দেশীয় ক্ষেত্র থেকে গ্যাস উত্তোলনে একেবারেই উদাসীন ছিল। সরকার তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানিতেই বেশি উৎসাহ দেখিয়েছে। 


কাজটি করা হয়েছে সরকারের ঘনিষ্ঠদের ব্যবসা দিতে। এখন যার খেসারত দিচ্ছে দেশের মানুষ। এ বিষয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত রাতে প্রথম আলোকে বলেন, ‘ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের কারণে বর্তমানে বৈশ্বিক যে সমস্যা, এটা হ্যান্ডেল (সামাল দেওয়া) করা যেত। বাংলাদেশের সমস্যা ভিন্ন। বাংলাদেশে বর্তমানে যে বিদ্যুৎ–সংকট, জ্বালানিসংকট, অর্থনৈতিক সংকট—সব সংকটের মূলে সরকারের চরম দুর্নীতি।’


News by prothom alo


আরো পড়ুন:



 




ঝিনাইগাতীতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এর জন্মবার্ষিকী পালিত


ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ৮ আগস্ট সোমবার সকাল ১০ ঘটিকায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এর ৯২ তম জন্মবার্ষিকী যথাযথ মর্যাদায় উদযাপন উপলক্ষে স্মৃতি চারণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।


 সরাসরি বিটিভি"র সম্প্রচারিত জীবনী আলোচনা অনুষ্ঠান সকলেই মনোযোগ সহকারে উপভোগ করেন এসময় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইগাতী উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এসএম আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাঈম। 


সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ফারুক আল মাসুদ এবং আরো উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুল আলম ভুইয়া,উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির দিলদার, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফ্লোরা ইয়াসমিন, প্রানি সম্পদ কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন,উপজেলা আওয়ামীলীগের নেত্ববৃন্দের মাঝে বিশ্বজিৎ রায়,মিজানুর রহমান মিলন,উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাহা আলম।


এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইগাতী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার,উপজেলার বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তা, কর্মচারী ও সাংবাদিকবৃন্দ। আলোচনা শেষে উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এসএম আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাঈম ও নির্বাহী অফিসার ফারুক আল মাসুদ উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে আলোচনা সভা শেষ করেন।


আরো পড়ুন:



 



ঠাকুরগাঁওয়ে খেলার মাঠে সাইনবোর্ড টাঙাতে গিয়ে সংঘর্ষ


ঠাকুরগাঁওয়ে বায়নামা দলিলমূলে ক্রেতারা জমিতে সাইনবোর্ড টাঙাতে গিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। সকলে এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 


গত শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার গড়েয়া হাটের দক্ষিণে অবস্থিত খেলার মাঠটিতে সাইনবোর্ড টাঙাতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে ওই এলাকার পরিস্থিতি থমথমে বিরাজ করছে। 


সংঘর্ষের বিষয়ে জানতে সরেজমিনে গেলে জানা যায়, পৈত্রিকসূত্রে প্রাপ্ত মনজু রহমান, হামিদুর রহমান, শফিকুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, নূরুল হুদা মোঃ কামরুজ্জামান, নুর আলম, বিলকিস বেগম ও সালেহা বেগমের কাছ থেকে গত ২৫ মে ও ৩০ জুন গড়েয়া ইউনিয়নের চোঙ্গাখাতা মৌজার, জেল নং- ৭৭, রকম- ডাঙ্গা, খতিয়ান নং- সি এস খতিয়ান-২১৭, খারিজ খতিয়ান নং- ৮৫৭,১১৮৫,১১৮৬, ১১৮৭, এসএ খতিয়ান - ২২৭, দাগ নং -৬৪৫, ১ একর ২৯ শতক হইতে ১ একর ০৮ শতক ও দাগ নং -৬৪৬, ১ একর ২৬ শতক হইতে ৫২ শতক। দুই দাগে সর্বমোট ১ একর ৬০ শতক জমি বায়নামা দলিল মূলে ক্রয় করেন স্বজল কুমার চৌধুরী ও ফখরুল ইসলাম জুয়েল। বায়নামা দলিল মূলে রেজিষ্ট্রিকৃত দলিল সম্পর্কিত স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় লিগ্যাল নোটিশও দেন ক্রেতা স্বজল কুমার চৌধুরী ও ফখরুল ইসলাম জুয়েল। 


বায়নামা দলিলমূলে ক্রয়কৃত ক্রেতারা শনিবার দুপুরে তাদের জমিতে সাইবোর্ড টাঙাতে যান স্বজল কুমার চৌধুরী ও ফখরুল ইসলাম জুয়েল। এসময় ক্রয়কৃত জমিটি খেলার মাঠ দাবি করে একদল দুর্বৃৃত্ত ও তাদের লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে এসে স্বজল কুমার চৌধুরী ও ফখরুল ইসলাম জুয়েলকে মারপিট করে। 


এদিকে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আহত অবস্থায় স্বজল কুমার চৌধুরী ও তার লোকজনকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতলে ভর্তি করানো হয়। 


জমির বিক্রেতা নূরুল হুদা মো. কামরুজ্জামান বলেন, এই জমিটির মালিক আমরা পৈত্রিকসূত্রে। বাপ-দাদার আমল থেকে নিয়মিতভাবেই জমির খাজনা-খারিজ আমরা দিয়ে আসছি। এই জমির মালিক আমরা। যেহেতু জমির মালিক আমরা সেক্ষেত্রে জমিটি বিক্রয় করা হয়েছে স্বজল কুমার চৌধুরী ও ফখরুল ইসলাম জুয়েলের কাছে। 


জমির ক্রেতা স্বজল কুমার চৌধুরী বলেন, আমরা টাকা দিয়ে জমিটি পৈত্রিকসূত্রে প্রাপ্ত মালিকদের কাছ থেকে কিনেছি। কেনা জমিতে সাইনবোর্ড টাঙাতে গেলে স্থানীয় দুর্বৃত্তরা ও ভূমিদস্যুরা আমাদের হামলা করে এবং মারপিট করে। আমরা অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিবো। 


তবে জমিতে সাইনবোর্ড টাঙাতে বাঁধা দেওয়া ব্যক্তিরা কেউ ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হয়নি। তবে তারা জানিয়েছেন, এই জমিটি দীর্ঘদিন যাবৎ খেলার মাঠ হিসেবে স্থানীয়রা ব্যবহার করে আসছে। বিভিন্ন সময় এই মাঠে খেলার টুর্ণামেন্ট ছাড়া হয়। তাই এই জমিটি খেলার মাঠ হিসেবেই থাকুক। 


ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল হোসেন বলেন, ক্রয়কৃত জমিতে সাইনবোর্ড টাঙাতে গেলে ক্রেতা ও স্থানীয়দের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে সেখানে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেয়নি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। 


এদিকে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো. সামসুজ্জামান বলেন, যে জমিতে ক্রেতারা সাইনবোর্ড টাঙাতে গিয়েছিল সেটি সরকারি খাস খতিয়ান ভুক্ত জমি নয়। সেটি ব্যক্তি মালিকানা জমি। যেহেতু ব্যক্তিগত মালিকানা জমি সেক্ষেত্রে মালিক যে কারও কাছে জমি ক্রয়-বিক্রয় করতে পারে। এতে আমাদের কোন ধরনের বাঁধা নেই।


আরো পড়ুন:



Holy Foods ads

Holy Foods ads

যোগাযোগ ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget