‘বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান স্পষ্ট’

0
182
বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান

বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান ও ভারতের সরকার প্রধানের বৈঠক নিয়ে যুগান্তরের প্রথম পাতার খবর, ‘বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান স্পষ্ট, ভারতের অবস্থান তাদের নিজস্ব’। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, বাংলাদেশে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজনের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান স্পষ্ট বলে জানিয়েছেন সেদেশের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের (এনএসসি) স্ট্র্যাটিজিক কমিউনিকেশন পরিচালক অ্যাডমিরাল জন কিরবি।

মঙ্গলবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রীয় সফরের প্রাক্কালে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ফরেন প্রেস সেন্টারে আয়োজিত এক বিশেষ ব্রিফ্রিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি বাংলাদেশে মানবাধিকার ও জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেন। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে তার বক্তব্য লিখিত আকারে প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রায় একই শিরোনাম করেছে সমকাল, “বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাশা স্পষ্ট”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, বুধবার তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন মোদি। সফরকালে তিনি মার্কিন কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন।

বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে তাঁর বৈঠক হবে। এ বৈঠকে যাতে ভারতে গণতন্ত্র, মানবাধিকারের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন, সে জন্য অনুরোধ জানিয়ে বাইডেনকে চিঠি দিয়েছেন ৭৫ কংগ্রেসম্যান।

বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান

এক সাংবাদিক কিরবিকে প্রশ্ন করেন যে, বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি যে ভিসানীতি ঘোষণা করেছে, ভারত যুক্তরাষ্ট্রের এ উদ্যোগের পাশে থাকবে কিনা?

জবাবে জন কিরবি বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বিষয়ে ভারত সরকারের যা বলার, সেটি তাদেরই বলতে দেওয়া উচিত। বাংলাদেশে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন বিষয়ে আমাদের প্রত্যাশার কথা আমরা ইতোমধ্যে স্পষ্ট করেছি।

বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান নির্বাচনে যারা বাধা সৃষ্টি করবে এমন ব্যক্তিদের ভ্রমণ ঠেকাতে আমরা ভিসা নীতি গ্রহণ করেছি।

এ নিয়ে কালের কণ্ঠের প্রথম পাতার খবর, “ভারতকে বাংলাদেশ বিষয়ে কথা বলার সুযোগ দেবে যুক্তরাষ্ট্র”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠকে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ উঠবে কি না তা আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করেনি কোনো পক্ষই।

নয়া দিগন্ত

তবে এরই মধ্যে ওই বৈঠকের আগে বাংলাদেশ নিয়ে ভারতের অবস্থান প্রসঙ্গে মার্কিন এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নিয়ে ভারতকে কথা বলার সুযোগ দেবে যুক্তরাষ্ট্র। আর যুক্তরাষ্ট্র তার অবস্থান থেকে কথা বলবে।

আগামী নির্বাচন সামনে রেখে বাংলাদেশের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের চাপ নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা বলবেন বলে সূত্রের বরাত দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

রাজশাহী ও সিলেটে সিটি নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে নয়া দিগন্তের প্রধান শিরোনাম, “ভোটার কম, ইভিএমে ভোগান্তি”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ভোটের প্রতি আগ্রহহীনতা অন্য দিকে প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর অংশ না নেয়াতে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল।

সমালোচিত ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) জটিলতায় ও বিকল হয়ে যাওয়ায় ভোট গ্রহণে ধীরগতি ও ভোটারের ভোগান্তি ছিল রাজশাহী ও সিলেট সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণে। ফলে ভোটাররা ছিল ক্ষুব্ধ।

আঙুলের ছাপ মেলাতেও সমস্যায় পড়তে হয়। ভোট দিতে দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে ইভিএম দিয়ে করা নির্বাচনের ভোট গ্রহণে। ভোটের ফলাফল পেতেও অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে।

বিএনপি’র সেমিনার নিয়ে মানবজমিনের প্রথম পাতার খবর, “যে নামেই হোক নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে”।

বর্তমান সরকারের অধীনে কোনোভাবেই বিএনপি নির্বাচনে যাবে না বলে জানিয়েছেন দলটির নেতারা। তারা মনে করছেন পঞ্চদশ সংশোধনী নিয়ে বিচারপতি খায়রুল হক অবৈধ রায় দিয়েছেন।

তিনি অবসরে যাওয়ার ১৬ মাস পরে রায়ে সই করেছেন, আবারো রায়ের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে ফেলা হয়েছে। সুতরাং বর্তমান সংবিধানের আলোকেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার বহাল রয়েছে, আওয়ামী লীগ গায়ের জোরে সংবিধানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে অস্বীকার করছে।

বিএনপি নেতারা বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হতে হবে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। ক্ষমতাসীন দলীয় সরকারের অধীনে অতীতের কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি। এজন্য আগামীতে নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন হতে হবে।

বুধবার ‘পঞ্চদশ সংশোধনীর সাংবিধানিকতা: নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার এখনো সংবিধানসম্মত’ শীর্ষক এক সেমিনারে এসব কথা বলেন বক্তারা।

বাংলাদেশে নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান প্রধানমন্ত্রীর বুধবারের সংবাদ সম্মেলন নিয়ে যুগান্তরের প্রধান শিরোনাম, “সেন্টমার্টিন লিজ দিয়ে ক্ষমতায় থাকতে চাই না”। বৃহস্পতিবার দুপুরে গণভবনে কাতার ও সুইজারল্যান্ড সফর নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে শিরোনামটি করা হয়েছে।

নিউ এইজ

বিএনপির দিকে ইঙ্গিত করে সরকার প্রধান বলেন, তারা গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল। এখন তারা দেশ বিক্রি করবে। তারা নাকি সেন্টমার্টিন দ্বীপ বিক্রির মুচলেকা দিয়ে আসতে চায়।

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের তদন্ত প্রতিবেদন পেছানো নিয়ে দ্য ডেইলি স্টারের প্রধান শিরোনাম, “100 times and counting”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারির রাতে তাদের হত্যার পর থেকে, তদন্তকারী সংস্থা দুবার বদলানো হয়েছিল, পাঁচবার তদন্ত কর্মকর্তা বদলানো হয়েছিল এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দুইবার তার নেতৃত্বে পরিবর্তন দেখেছিল।

কিন্তু এক দশকেরও বেশি সময় ধরে রহস্য ভেদ করতে কোনো অগ্রগতি হয়নি।

২০১২ সাল থেকে এখন পর্যন্ত, র‌্যাব ৯৮ বার এবং আগের দুটি সংস্থা আরও দুবার অর্থাৎ মোট ১০০ বার আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার সময়সীমা পিছিয়েছে।

অথচ হত্যাকাণ্ডের পরপরই তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে খুনিদের ধরার অঙ্গীকার করেছিলেন। সেই ৪৮ ঘন্টা এখন ৯৯ হাজার ঘন্টা ছাড়ালেও প্রতিশ্রুতি অপূর্ণই থেকে গিয়েছে।

সমকাল

ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিশেষ সুবিধা দেয়ার বিষয়ে সমকালের প্রধান শিরোনাম, “নির্বাচনের বছরে ব্যাংক পরিচালকদের বড় ছাড়”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে এবারও ব্যাংকের মালিকদের আবদার পূরণ করল সরকার।

ব্যাংকে পরিচালক পদে টানা ১২ বছর থাকার সুযোগ দিয়ে গতকাল ব্যাংক কোম্পানি আইনের সংশোধনী জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

কোনো ব্যক্তি বা গ্রুপের স্বার্থসংশ্লিষ্ট এক প্রতিষ্ঠান খেলাপি হলে অন্য প্রতিষ্ঠানকে খেলাপি দেখানো যাবে না– এমন সুযোগও রাখা হয়েছে। তাদের ঋণ পেতেও কোনো সমস্যা হবে না।

২০১৮ সালের নির্বাচনের আগেও ব্যাংক কোম্পানি আইন সংশোধন করে পরিচালক পদে ৬ বছরের পরিবর্তে টানা ৯ বছর এবং এক পরিবার থেকে ২ জনের পরিবর্তে চারজন পরিচালক হওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়। এবার তাঁদের জন্য সুযোগ আরও বাড়ানো হলো।

কালের কণ্ঠ

সংসদের বৈঠকে বুধবার বিলটি পাসের তীব্র বিরোধিতা করে ওয়াকআউট করেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্যরা।

হাসপাতালে জন দুর্ভোগ নিয়ে নিউ এইজের প্রধান শিরোনাম, “Dialysis in two key public hospitals face suspension”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ভারতের হায়দ্রাবাদ-ভিত্তিক স্যান্ডর ম্যাডিকেডস বৃহস্পতিবার থেকে ডায়ালাইসিস সেবা স্থগিত করার ঘোষণার কারণে ঢাকা এবং চট্টগ্রামের কিডনি রোগীদের দুর্ভোগে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

স্যান্ডর ২০১৭ সাল থেকে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজিতে ৫৯টি ডায়ালাইসিস মেশিন এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩১টি মেশিনের মাধ্যমে সেবা প্রদান করছে।

কর্মকর্তারা জানান, এ দুটি হাসপাতাল থেকে প্রতিদিন শত শত কিডনি রোগী ডায়ালাইসিস সেবা নেন।

স্যান্ডর ডায়ালাইসিস সার্ভিসের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ৩০ কোটি টাকা সার্ভিস চার্জ না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার থেকে সেবা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোম্পানিটি। বাংলাদেশ সরকার বকেয়া অর্থ প্রদানে বিলম্ব করায় তারা এই সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানায়।